PERFUMANCE

[fibosearch]
Avatar

মিট্টি সুপ্রিম

সিজনের প্রথম বৃষ্টির পরপর ভেজামাটির ঘ্রাণ। পোড়া পোড়া। খুব জোরে, ডিপলি যখন ঘ্রাণ নেওয়া হয় ; অন্তরের সব দম্ভ ভেঙে তছনছ হয়ে যায়।নিজেকে খুব তুচ্ছ মনে হয়, দুনিয়াকে খুব ঠুনকো মনে হয়। মাটির মাঝে যেই ব্যাকটেরিয়া আর সায়ানো ব্যাকটেরিয়া বসবাস করে, তারা যখন মরে যায়, তৈরি হয় Geosmin নামের ন্যাচারাল "মাটির সুবাস" যৌগ। বহুদিন বহুদিন যখন বৃষ্টি হয়না, মাটি "শীতে গৃহিণীর পায়ের গোড়ালি"র মত ফেটে চৌচির হয়, সেই সময়ে জিওসমিন সাহেব ফাঁকে ফাঁকে আটকে থাকে। অনেক প্রতিক্ষার পরে আকাশ কালো করে মেঘ জড়ো হয় যখন, বৃষ্টির ঠিক আগ দিয়ে বাতাসে জলীয় বাষ্প বেড়ে যায় আর মাটির ফাঁকে থাকা জিওসমিনকে টেনে বের করে এনে ছড়িয়ে দেয় চারিপাশে। বিদগ্ধ কৃষক আনন্দে কেঁদে ফেলে "মনা রে, বিষ্টির ঘ্রাণ পাইতেসি লাগে..." ! মূল চমকটা আসে বৃষ্টির সময়ে। পানির বড় বড় ফোটা আছড়ে পড়ে, ঘ্রাণ-যৌগটা ফাঁকফোকড় ছেড়ে একদম উপরিভাগে চলে আসে। তখন শুধু দক্ষ চাষী নাহ, ভেজামাটির বাসনা পায় সবাই। সা রা শরীর কাদা-মাখানো ৩ বছর বয়সী নেংটুপুটু বাচ্চাটা ; মেট্রোরেলের কাজ চলতে থাকা মিরপুরের মেঠোপথ দিয়ে জোরসে সাইকেল চালায়ে যাওয়া ভাই-টা ; বৃষ্টিতে শরীরের কিছু অংশ ভেজানোর হারানোসুন্নত পালনরত গ্রামের জানালা দিয়ে কবজি বের করা মানুষটা! ঘ্রাণটা বোতলজাত করতে কাটখড় পোড়াতে হয়েছে অনেক (আক্ষরিক অর্থেই!) ... সেইযে বৃষ্টি হলো অনেক অপেক্ষার পরে, বর্ষণ শেষ হয় যখন, মাটি শুকায় আবার, কিছু মানুষ তখন কাজে লেগে যায় চুপিসারে। জিওসমিন খুব চালু (উদ্বায়ী) তো, একটুতেই উড়ে যেতে চায় বাতাসে। মানুষগুলো তাই শুকনো মাটিকে স্রেফ পুড়ে ফেলে আগুনে ! এবার সেই পোড়ামাটিকে বিশাল ডেগে (ডেকচির কথা বলছি) পানিসহ চড়িয়ে জ্বাল দাও আচ্ছাসে। মুখবন্ধ ডেকচির উপরের দিকে একটা চোংগা লাগানো থাকে, যেটার অন্য মাথা যায় খুব সুন্দর দেখতে পিতলের কলসীতে (কান্নুজে ওয়ার্কারদের দেখেছি সেটাকে ভাপকা বলে ডাকতে)। একটুখানি রসায়ন খেলা করে এবার, সিদ্ধ হতে থাকা পোড়া-মাটি থেকে ঘ্রাণযৌগ বাষ্পের সাথে মিশে উপরে উঠে, চোংগা দিয়ে যেতে যেতে ঠাণ্ডা হয় আর ভাপকার ভেতরে জমা হয়। এইযে কঠিন মাটি থেকে তরল সুবাস বের করে আনা -- এই এক্সট্রাকশান পদ্ধতিটার কেতাবি নাম হাইড্রো-ডিস্টিলেশন। তেল আর পানি যেহেতু মিলেনা, তাই মিট্টির তেলরুপী সুবাস-মলিকিউল ভেসে থাকার কথা পানির উপরে। কিন্তুউউউ, ঐযে বলেছি, জিওসমিন অনেক উদ্বায়ী, উড়ে যাওয়ার প্রবণতা খুব ; তাই তাকে কামড় দিয়ে আটকে রাখার জন্যে ভাপকা'য় আগে থেকেই স্যান্ডালউড অয়েল দেওয়া থাকে। যেন সে আসামাত্র ধরে ফেলা যায়। এত কষ্ট করলাম তোমায় উড়তে দেবো বলে? কক্ষনো না! কলসী থেকে এবার "চন্দনে-পরিবেষ্ঠিত মিট্টি আত্তার"কে নেওয়া হয় মহিষের চামড়ায় তৈরি বিশালাকৃতি বোতল 'কুপ্পি'তে ; যেন মিট্টি আত্তারের সাথে যদি অল্পটুকুও পানি থেকে থাকে, চামড়ার বোতলের সুক্ষ্ম কৈশিক-নালিকাগুলো সেগুলোকেও ঝেটিয়ে বিদায় করতে পারে। ন্যাচারাল আত্তারটা আরো ঘন, আরো গাঢ় হয় সেথায়। কুপ্পি থেকে ঢেলে এলুমিনিয়ামের বোতলে করে সেইইই উত্তরপ্রদেশের কান্নুজ থেকে নিয়ে এসেছি অল্প পরিমাণে, আপনাদের চাখাবো বলে। অল্প কিছু মানুষের সৌভাগ্য হয়েছে সোঁদামাটির ঘ্রাণকে তরল আকারে অনুভব করার, সেই তালিকায় আপনার নাম লেখাবো বলে 🙂 'মিট্টি সুপ্রীম'র এক জাদুকরী "Anti-depression" ক্ষমতা আছে, বোধকরি মাটির সাথে আমাদের অবিচ্ছেদ্য সম্পর্কের জন্যই। ন্যাচারাল ঘ্রাণটা মুহূর্তেই মন ভালো করে দেয় আর হতাশাকে দেয় ছুটি (আচ্ছা, মুমিনের আবার হতাশা কিসের?) ! এছাড়া এটাকে এরোমাথেরাপি'র অংশ হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন - গোসলের পর জাস্ট দুই স্টিক আত্তার নিয়ে মুখ-বুকজুড়ে বুলিয়ে নিলেন, এরপর মাটির মাঝেই নিজেকে খুঁজে ফেরা... বাহ্যিক বিচারে লংলাস্টিং মনে না হলেও, Mitti Supreme যে মনের উপরে লং লাস্টিং প্রভাব ফেলবে - এ কথা নির্দ্বিধায় বলতে পারি।

৳ 900.00

কেনার আগেঃ

কোয়ালিটি প্যাকেজিং করে দেয়া হবে। নষ্ট হবার ভয় নেই

ঢাকার ভেতর অর্ডার করলে হোম ডেলিভারি পাবেন

ক্যাশ, বিকাশ, রকেট এবং নগদে পেমেন্ট করতে পারবেন

সুগন্ধির বিবরণঃ

জানেন, রসূল সল্লাল্লহু 'আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর সময় একবার খুব অনাবৃষ্টি দেখা দিয়েছিল। আকাশ মারফত আসা জলের বিহনে বিনষ্ট হতে থাকল মাল-সম্পদ, জীবিকার পথ হলো রুদ্ধ। রসূল (সা:)র কানে এ খবর পৌঁছুলো যখন, উনি দুহাত তুলে রব্বে কারীমের দরবারে বৃষ্টির জন্য আকুল আবেদন করলেন। সর্বকালের সবচাইতে নিষ্পাপ মানুষটির পবিত্রতম দুআর বরকতে কিছুক্ষণের মধ্যেই আবির্ভাব ঘটে মেঘের আর জরাজীর্ণ জমিনের বুকে নেমে আসে কাঙ্ক্ষিত বারিশাত..! রৌদ্রের খরতাপে ফেটে চৌচির হওয়া মাটির বুকে বহুকাল পরে নেমে আসা "হঠাৎ বৃষ্টি"র সুবাস (যাকে কেউ কেউ কাব্যিক ভাষায় Petrichor বলে থাকেন) , তা মানবমনে কি পরিমাণে যে ড্রামাটিক পরিবর্তন নিয়ে আসতে পারে - সেটা যদিও লেখার অক্ষরে তুলে ধরা সম্ভব না একটুও ; তবুও অনুপম ঘ্রাণের হঠাৎমনভালোকরা এক দুর্লভ সুবাস "Mitti Supreme" এর কারিশমা নিয়ে কিছু বলতে চাচ্ছি আজ 🙂 মাটির সাথে আমাদের সম্পর্ক কেমন, তা বোঝার জন্য একটি আয়াতই যথেষ্টঃ আল্লাহ সুবহানাহু তা'আলা বলেন: "এ মাটি থেকেই আমি তোমাদেরকে সৃজন করেছি, এতেই তোমাদেরকে ফিরিয়ে দিব এবং পুনরায় এ থেকেই আমি তোমাদেরকে উত্থিত করব।" (সূরা ত্বহা, ৫৫ নাম্বার আয়াত) আমাদের যেখানে মাটিতেই হয়েছে শুরু, মাটিতেই হবে শেষ, মাঝের এই স্বল্প সময়টুকুতেও এই মাটিকে মন-মস্তিষ্কে ধারণ করে আপন করতে শেখাবে "মিট্টি সুপ্রীম"। দুনিয়ার বুকে বিশাল অট্টালিকা কিংবা কুঁড়েঘর -- যাই কামাই করিনা কেন, মৃত্যুর পরে যেখানটা আমার বহুদিনের আবাসস্থল হবে ; কবরের কথা বেমালুম ভুলে থাকা এই আমাদেরকে সেই গহীন একাকী ঘরের কথা মনে করাবে... অর্গানিক আত্তার আর ক্যামিকাল পারফিউম-অয়েলের মধ্যে পার্থক্য-টা আকাশ পাতাল দূরত্ব থেকেও বেশি। ক্যামিকাল পারফিউম-অয়েল আপনাকে সুঘ্রাণিত করে রাখবে কয়েকঘণ্টা, কিন্তু আপনার মনকে উদ্বেল করবেনা, আপনার মস্তিস্কে চলতে থাকা জটিল কোন চিন্তাকে সে শানিত করবেনা। অর্গানিক আত্তার এদিক দিয়ে একদম ভিন্ন।এরা আপনাকে বেশ ক ঘ্রাণের সমুদ্রে ভাসাবে ত অবশ্যই ,পাশাপাশি ইফেক্ট ফেলবে মনের উপরেও, চিন্তার আধারেও। সত্যিকারের অর্গানিক যদি স্নিফ করেন একবার, সব দুশ্চিন্তা এক পলকে নাই হয়ে যেতে বাধ্য, আপনার ভেতরটা এক লহমায় পবিত্রতায় ছেয়ে যাবেই যাবে! Afdal - افضل সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, সে নিজেকে নিয়োজিত রাখবে দুর্লভতর অর্গানিক আত্তারের সন্ধানে ; আর এই আপনাদেরকে প্রাকৃতিক ঘ্রাণাবলির সাথে পরিচয় করায়ে দিবে।

আপনাদের মিষ্টি রিভিউগুলো

There are no reviews yet.

Be the first to review “মিট্টি সুপ্রিম”

Your email address will not be published.

নতুন যা এসেছে

Avatar

এস্কেপ

৳ 245.00৳ 680.00

Avatar

বাকারাত রাশ

৳ 400.00৳ 1,050.00

Avatar

পোলো ব্লু

৳ 145.00৳ 330.00

Avatar

ভারসাচে

৳ 145.00৳ 330.00